আমার শহর শিলিগুড়িঃ ২৯ এপ্রিল, লকডাউনের মাঝেও শিলিগুড়ি শহর তার স্বাভাবিক ছন্দে। লকডাউনে বাজার-ঘাট,অফিস-আদালত সব বন্ধ থাকলেও বন্ধ নেই সকালে দল বেধে মর্নিং-ওয়াক্। আজ সকালে এমনই চিত্র দেখা গেল শিলিগুড়ি সূর্যনগর মাঠে। মাঠ জুরে দল বেধে চলছে মর্নিং-ওয়াক্। একই সাথে মাঠে খেলা ধুলা। উল্লেখ্য যে এদের অধিকাংশই যথেষ্ট শিক্ষিত এবং আসে-পাশের এলাকার বাসিন্দা। তারাই যদি লকডাউনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে স্বাভাবিক জীবন অতিবাহিত করতে পারে তাহলে কেবলমাত্র শিলিগুড়ির বস্তি এলাকার মানুষদের দোষ দিয়ে কি লাভ ?
আসলে এই মুহূর্তে সকালে দল বেধে মর্নিং-ওয়াক্ বা মাঠে একত্রে খেলা-ধূলাটা তাদের কাছে বেশী আবশ্যক। জানি না শিলিগুড়িতে লকডাউনের জন্য সময় সীমা স্থির করে দেওয়া হয়েছে কিনা। আর এই কঠিন সময়ে করোনা মহামারী মোকাবিলা করতে লকডাউনের জন্য নির্দিষ্ট সময় সীমা বলে কিছু থাকবার কথাও নয়। এবিষয়ে প্রশাসন কি ভাবছেন?