আমার শহর শিলিগুড়িঃ করোনা প্রাণ কেড়ে নিয়েছে বাবার। এই অবস্থায় মধ্যবিত্ত ছেলে দিশাহারা। একদিকে বাবার মৃত্যুর শোক, অপরদিকে হাসপাতালে কতৃপক্ষের অমানবিক আচরণ। ৭৪ বছর বয়সী এক বৃদ্ধের মৃত্যুর পর তাঁর ছেলের হাতে ১৮ লাখ টাকার বিল ধরিয়ে দিল মুম্বইয়ের এক হাসপাতাল। বিলের বহর দেখে ছেলের চক্ষু চড়কগাছ ! মুম্বইয়ের জুহুর এক বেসরকারি হাসপাতাল এই ঘটনাটি ঘটেছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের পাঠানো বিল দেখে ভেবে কুল কিনারা করতে পারছে না ছেলে।

গত ৩১ মার্চ সেই বৃদ্ধকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বৃদ্ধের শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ কাজ করা বন্ধ করে দিয়েছিল। তাই তাঁকে রাখতে হয়েছিল আই.সি.ইউতে। ১৫ এপ্রিল সেই বৃদ্ধ হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এর পরই তাঁর ছেলেকে ১৮ লাখ টাকার বিল ধরিয়ে দেয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। বৃদ্ধের ছেলের কথায়- সেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ শুধু কোভিড চার্জই নিয়েছে দুই লাখ ৮০ হাজার টাকা। ওষুধ ও আই.সি.ইউ’র ভাড়া আট লাখ ৬০ হাজার টাকা। এছাড়া অন্যান্য বিল চার লাখ ৬০ হাজার টাকা। শুধু তাই নয় বৃদ্ধের মৃতদেহ হাসপাতাল থেকে শ্মশানে নিয়ে যাওয়ার জন্য অ্যাম্বুলেন্সের ভাড়াও ধরা হয়েছে আট হাজার টাকা।

হাসপাতালের কতৃপক্ষের যুক্তি, ভারতের যে কোনও উঁচু মানের হাসপাতালে এমন চার্জই নেওয়া হয়। কোনও কোনও হাসপাতাল নাকি এর থেকেও বেশি টাকা বিল করে।
কি আজব দেশে আমরা বাস করি। করোনা মহামারীর রোগীরও নিস্তার নেই এই লোভীদের হাত থেকে। ।