আমার শহর শিলিগুড়িঃ সোনার দোকানে বিক্রি হচ্ছে আলু,পেয়াজ,আদা,রসুন। একথা শুনলে আগে আমরা হয়তো একটু অবাক হতাম। কিন্তু করোনা পরিস্থিতি সবকিছুই বদলে দিয়েছে। বদলে দিয়েছে মানুষের পেশা, কাজ সবকিছুই। যেমন কিছুদিন আগেও আমরা শুনেছিলাম এক গৃহশিক্ষকের সবজি বিক্রির কথা।
কলকাতার বাগবাজার স্ট্রীট এর”বিশ্বাস জুয়েলারী হাউস।” এলাকার বিশ্বস্ত সোনার দোকান হিসেবে বিশেষ পরিচিত। করোনা মহামারী মোকাবিলায় লকডাউনের কারনে সোনার অলংকার বা পাথর বিক্র‍য় সব বন্ধ। এই অবস্থায় সংসার চালানো কঠিন হয়ে পড়ায় বাধ্য হয়ে তাঁর সোনার দোকানেই আলু,পেয়াজ,আদা,রসুন বিক্রয় করা শুরু করলেন দোকানের মালিক যুগল বাবু।
তাঁর কথায় এই কঠিন পরিস্থিতিতে সোনা দানা আর কেউ কিনবে না, কিন্তু আলু পেয়াজ মানুষের নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী। তাই এগুলো বিক্রি করলেও কিছুটা আয় হবে। নইলে এই পরিস্থিতিতে না খেয়ে মরতে হবে।
করোনা আবহে প্রতিনিয়ত এধরণের পেশার পরিবর্তন ঘটে চলেছে। কারন মানুষকে বেঁচে থাকতে হবে, আর বেঁচে থাকবার জন্য পেটে টান পড়তে শুরু করলে এমন আরো অস্বাভাবিক ভাবে পেশার পরিবর্তন আমরা দেখতে পাবো যা হয়তো আমরা কোনদিন ভাবতেও পারিনি।