গলায় মাংস আটকে বাংলাদেশের মানিকগঞ্জে চঞ্চল হোসেন (২০) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়। তার বোন সুমাইয়া আক্তার জানান, তার ভাই চঞ্চল ঢাকার একটি প্রেসে চাকরি করেন। বুধবার সকালে ঢাকা থেকে বাড়ি আসেন তিনি। বাড়িতে এসে তাড়াহুড়ো করে ভাত ও মাংস খাওয়ার সময় গলায় এক টুকরো মাংস আটকে যায়। পরে তাকে মানিকগঞ্জ জেলা হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আনা হলে করোনা আক্রান্ত সন্দেহে তার পাশে কোন চিকিৎসক আসেননি। কিছুক্ষণ পর জরুরি বিভাগ থেকে জানানো হয় চঞ্চল মারা গেছে।
চঞ্চলের মা শিখা বেগম জানান, দুই মেয়ে আর ছেলে চঞ্চলকে নিয়ে তার সংসার। স্বামী মারা গেছে দীর্ঘদিন। পারিবারিক অভাবের কারণে ছেলেকে চাকরিতে দিয়েছেন ঢাকার একটি প্রেসে। গতকাল ফোনে ছেলে মাংস রান্না করতে বলেন তাকে। পরে আজ সকালে মাংস দিয়ে ভাত খাওয়ার সময় গলায় আটকে যায় তার। এরপর হাসপাতালে নিয়ে আসলে বিনা চিকিৎসায় তার ছেলের মৃত্যু হয়।

করোনার কারনে আজ পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে অন্যান্য রোগীরা ঠিকমতো চিকিৎসা পরিষেবা পাচ্ছে না। এই ঘটনা তারই সাক্ষ্য বহন করে।