আমার শহর শিলিগুড়িঃ করোনাভাইরাস সংক্রমণ নিয়ে সমগ্র বিশ্ব জুড়ে আতঙ্কের ছায়া। হারিয়ে গেছে মানুষের মুখের হাসিটুকু। বেঁচে থাকবার জন্য খুব প্রয়োজন ছাড়া মানুষ বাজারের কেনা কাটা প্রায় বন্ধ করে দিয়েছে। স্বাভাবিক ভাবেই দেশের জুয়েলারী দোকানগুলোর অবস্থাও শোচনীয়। এই আঁধারের মধ্যেই নিজেদের অবস্থার পরিবর্তনে উদ্যোগ নিলেন এক স্বর্ণশিল্পী। এই মুহূর্তের কথা মাথায় রেখেই তিনি তৈরী করে ফেললেন রুপোর মাস্ক। আর এটি বানিয়েছেন কর্নাটকের এক স্বর্ণশিল্পী। দামও খুব একটা বেশি নয়। ইতিমধ্যে এই মাস্ক নিয়ে বেশ সাড়াও তিনি পাচ্ছেন। তাঁর মতে বর এবং কনে তাদের বিয়েতে ব্যবহারের জন্য এই মাস্ক কিনতে পারেন। আবার বিয়ে বা যে কোন অনুষ্ঠানে এই রূপোলী মাস্ক উপহারও হয়ে উঠতে পারে । লকডাউন উঠে গেলেও করোনাভাইরাস সংক্রমণের ভয় নিয়েই আমাদের কাটাতে হবে আরও অনেক দিন। যতদিন না ভ্যাকসিন তৈরি হচ্ছে ততদিন মেনে চলতে হবে অনেক বিধিনিষেধ। তাই ভবিষ্যতে এই মাস্কের চাহিদাও বাড়তে পারে। ইতিমধ্যেই ভারতের সব নাগরিকের জন্য বাড়ির বাইরে বের হলে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে নানা রকমের মাস্কও এসে গিয়েছে বাজারে। তাতে নতুন সংযোজন এই রুপোর মাস্ক। বলা যেতে পারে এই রুপোর মাস্ক এখন নতুন অলঙ্কার, সাধ্যের মধ্যেই দাম হওয়ায় বিয়ের মরশুমে এটি ভাল উপহার হতে পারে। এক্ষেত্রে প্রতিটি রুপোর মাস্কের ওজন ২৫ গ্রাম থেকে ৩৫ গ্রামের মধ্যে রাখা হয়েছে । ওজন হিসেবে এর দাম ঠিক করা হয়েছে ২,৫০০ থেকে ৩,৫০০ টাকার মতো।