নীলাঞ্জন সেনগুপ্তঃ ভারতের করোনা প্রতিষেধক কোভ্যাকসিন এর প্রথম পর্বের ট্রায়ালে অত্যন্ত উৎসাহজনক সাফল্য পাওয়া গিয়েছে। জানালেন রোহতকের মেডিক্যাল সাইন্সের গবেষকরা।
দেশের করোনা চিকিৎসায় যে যুদ্ধকালীন গবেষণা চলছে সে সম্পর্কে এই মুহূর্তের সবচেয়ে আশাব্যঞ্জক খবরটি পাওয়া গেল রবিবার। কোভ্যাক্সিন এর প্রথম ট্রায়ালেই অত্যন্ত উৎসাহজনক সাফল্য পাওয়া গিয়েছে।
গত ২৪ জুলাই শুক্রবার হায়দরাবাদের ভারত বায়োটেক, আই.সি.এম আর.এবং ন্যাশানাল ইন্সটিটিউট অফ ভাইরোলজির মিলিত প্রচেষ্টায় প্রথম এই কোভ্যাকসিনের মানবদেহে ট্রায়াল শুরু হয়।
প্রথম স্বেচ্ছায় এই টিকা নিজের শরীরে প্রয়োগের অনুমতি দেন দিল্লির ৩০ বছরের এক ব্যক্তি। সেই সাথে দিনই আরও ৫০ জনকে এই ভ্যাকসিনটি দেওয়া হয়। এছাড়া শনিবারও এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয় আরও ছয়জনের উপরে। ভ্যাকসিন ট্রায়াল টিমের প্রিন্সিপাল তথা ইনভেস্টিগেটর সংবাদসংস্থা এ.এন.আইকে জানান যে প্রথম দফার পরীক্ষা শেষ। তবে সবচাইতে আনন্দের বিষয় এই যে এখনও পর্যন্ত এই ভ্যাক্সিন এর কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি এবং ফলাফলও যথেষ্ট উৎসাহজনক। তিনি আরও বলেন প্রথম দফার পর দ্বিতীয় ধাপের পরীক্ষাটি আরও বড় পরিসরে সংগঠিত হবে। এক্ষেত্রে অন্তত ৭৫০ জন স্বেচ্ছাসেবকের এই ভ্যাক্সিন প্রয়োগ করা হবে। দেশের ভিন ভিন্ন স্থানে অর্থাৎ ১২ টি বিভিন্ন জায়গায় এই ভ্যাকসিন স্বেচ্ছাসেবকদের উপর প্রয়োগ করা হবে। আশা করা হচ্ছে যে পরবর্তী ট্রায়ালেও এই ভ্যাক্সিন সফলতার সাথে উত্তীর্ণ হবে।