অভিজিৎ বসাকঃ বিদ্যার দেবী সরস্বতী। মাঘ মাসের শুক্ল পঞ্চমী তিথিতে ঘটা করে বিদ্যার্থীরা যার আরাধনা করেন। উদ্দেশ্য দেবীর কাছ থেকে জ্ঞান বিদ্যা বুদ্ধি প্রার্থনা করা। পূজার পর দেবীকে অনেকে তাদের পড়ার ঘরে বা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রেখে দেন। পরের বছর আবার নতুন প্রতিমা এলে পুরোনো প্রতিমাকে অনেকে ভিন্ন ভিন্ন স্থানে রেখে আসেন। কারন সরস্বতী মা কে বিসর্জন দেবার রীতি নেই। কিন্তু তাই বলে ডাস্টবিনের উপর??
এমনই চিত্র দেখা গেল শিলিগুড়ির এস.এফ.রোডের পাশে। উপরে সরস্বতী মা আর নীচে ডাস্টবিনের স্তুপ। কে বা কারা দেবী সরস্বতীর প্রতিমাকে বসিয়ে রেখে গিয়েছে ডাস্টবিনের ঠিক উপরে। যে প্রতিমাকে পূজোর আগে প্রাণ প্রতিষ্ঠা করা হয় সেই প্রতিমা কি তাহলে পূজোর পর প্রাণ হারিয়ে ফেলে? শুধু মাত্র আনন্দ ফুর্তি করাটাই কি আজ যেকোন পূজার একমাত্র উদ্দেশ্য। যেখানে ভক্তিভাব প্রায় গুরুত্বহীন।
বোধহয় এই সংস্কৃতির কারনেই আমাদের বিদ্যা শিক্ষা সব অস্তাচলে যেতে বসেছে। আসলে আমারা ভুলে যেতে বসেছি আমাদের সংস্কৃতি, আমাদের ঐতিহ্য। তাই এমন দৃশ্য মেনে নিতে অসম্ভব হলেও আমাদের দেখতে হচ্ছে। আর আমরা শিক্ষাকে বহন করে নিয়ে এক সময় এই দেবীর মতোই ফেলে দি। তাই হয়তো শিক্ষার ডিগ্রি নিয়েও আজ অনেকে শিক্ষাকে আত্মস্থ করতে পারলো না।

ছবিঃ অভিজিৎ বসাক