টাকার পরিবর্তে করোনায় মৃতের দেহ আত্মীয়দের দেখানোর অভিযোগের ঘটনা ঘটলো হাওড়ার শিবপুর শ্মশানে। করোনায় মৃত এক ব্যক্তির পরিবার দাবি করে যে শ্মশানে মৃতদেহ দেখতে চাওয়ায় শ্মশানের কর্মীরা তাদের কাছে ৫১,০০০ টাকা দাবি করে।

শিবপুরেরই বাসিন্দা এক বৃদ্ধ রবিবার দুপুরে হাওড়ার সঞ্জীবন হাসপাতালে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়। হাসপাতালের তরফে জানানো হয় যে সৎকারের জন্য মৃতদেহ শিবপুর শ্মশানে পাঠানো হয়েছে। এরপর শ্মশানে গিয়ে বৃদ্ধের দেহ দেখতে চায় পরিবারের সদস্যরা। আর দেহ দেখাবার জন্য পরিবারের সদস্যদের কাছে শ্মশানকর্মীরা ৫১,০০০ টাকা দাবি করেন।
করোনায় মৃতের দেহ পরিবারের সদস্যদের হাতে তুলে দেওয়ার নিয়ম প্রশাসনের নেই। তবে মানবিক কারণে অনেক সময় প্রশাসনিক কর্মীরা দূর থেকে মৃতদেহ দেখান কিন্তু তার জন্য অর্থের দাবি করার কোনও নিয়ম তাদের নেই।
মৃতের পরিবারের তরফে জানানো হয়েছে, বেশ কিছুক্ষণ বিবাদ ও আলোচনার পর শ্মশানকর্মীরা ২,৫০০ টাকায় দেহ দেখাতে রাজি হয়। অবশেষে টাকা দিয়ে মৃতদেহ দেখবার সুযোগ পায় রোগীর আত্মীয় পরিজনরা। ঘটনাটি অত্যন্ত অমানবিক। শেষবারের মতো তাদের প্রিয়জনকে একবার দেখবার জন্য মন ব্যকুল হবেই। আর এই দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে টাকার দাবি এই যুগের মানসিকতায় হয়তো সম্ভব।