শিলিগুড়িতে এক গৃহবধূর অস্বাভাবিক মৃত্যুতে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায় শিলিগুড়ির ডাবগ্রাম ২ নং অঞ্চলে পুর্ব মাঝাবাড়ি এলাকায়। মৃত গৃহবধূর নাম মামন সাহা,বয়স ২০ বছর।
স্থানীয় সুত্রে জানা যায় ওই গৃহবধূ শনিবার রাতে তাঁর বাপের বাড়ি থেকে শ্বশুরবাড়িতে আসেন। কিন্তু তারপরেই রবিবার সকালে মেয়ের মৃত্যুর খবর পায় গৃহবধূর বাপের বাড়ির লোকেরা। তাঁদের অভিযোগ তাঁদের মেয়েকে খুন করা হয়েছে। এই ঘটনার পর মেয়ের পরিবারের সদস্যরা অভিযুক্তের বাড়িতে ভাঙচুর চালায়। এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে ঘটনাস্থলে পৌঁছোয় ভক্তিনগর থানার পুলিশ ও শিলিগুড়ি মেট্রোপলিটনের আশিঘর ফাঁড়ির পুলিশ। এরমধ্যেই পুলিশ মৃত গৃহবধূর শ্বশুরবাড়ির তিনজন সদস্যকে আটক করলেও ঘটনার পর থেকেই গৃহবধূর স্বামী রামপ্রসাদ পোদ্দার পলাতক।

এলাকার অঞ্চল সভাপতি শ্রীনির্মল বর্মন জানায় এটা একটি পরিকল্পিত খুন বলে মনে করছে স্থানীয় বাসিন্দারা। কারন ওই গৃহবধূর স্বামী সহ শ্বশুর বাড়ির সকলেই অত্যাচার করত গৃহবধূর উপরে। ঘটনায় দোষীদের কঠোর শাস্তির দাবি জানায় মৃতার পরিবার। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে এবং ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।