নবজাতক শিশুর জন্মের বিল মেটাতে পারেনি দম্পতি আর একারনেই বাধ্য হয়ে সন্তানকে বিক্রি করে দিল হাসপাতাল!

ঘটনাটি ঘটেছে আগ্রার জে.পি. হাসপাতালে। সেখানে এক মহিলার সিজারের খরচ ৩০ হাজার এবং ওষুধের খরচ ৫ হাজার। কিন্তু দুঃস্থ দলিত দম্পতির ক্ষেত্রে এত টাকা জোগার করা সম্ভব ছিল না। আর একারনেই হাসপাতালের বিল মেটানোর জন্য দুঃস্থ দলিত দম্পতির সদ্যোজাত পুত্র সন্তানকে ১ লক্ষ টাকায় বিক্রি করে দিলেন হাসপাতাল। আগ্রার জে.পি. হাসপাতালের বিরুদ্ধে এই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ ওঠায় ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই হাসপাতাল সিল করে দেয় জেলা স্বাস্থ্য দফতর। সেই সাথে হাসপাতালে তল্লাশিও চালানো হয়। তল্লাশির সময় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ রেজিস্ট্রেশন-সহ কোনও বৈধ কাগজপত্র দেখাতে পারেনি। সেসময় হাসপাতালে কোনও চিকিৎসক বা মেডিক্যাল স্টাফেরও দেখা পাওয়া যায়নি। এমনকি কোনও রোগীরও হাসপাতালে ছিল না। জেলা স্বাস্থ্য দফতর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে একটি নোটিশ ইস্যু করে আধিকারিকদের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে চিফ মেডিক্যাল অফিসারের সামনে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। হাসপাতালের বিরুদ্ধে ৩৭০ ধারায় মামলা করেছে স্থানীয় প্রশাসন। আগ্রার জেলা প্রশাসন দলিত দম্পতির সঙ্গে দেখা করেন। দম্পতি তাদেরঁ সন্তানকে ফিরে পাওয়ার জন্য কাতর আবেদন জানিয়েছেন।