নীলাঞ্জন সেনগুপ্তঃ প্রথম স্ত্রীকে না জানিয়েই দ্বিতীয় বিয়ে করেছে ভারতের খ্যাতনামা সঙ্গীত শিল্পী উদিত নারায়ণে। এমনই অভিযোগ উঠে আসলো।
কেরিয়ার সেভাবে মজবুত হওয়ার আগেই ১৯৮৫ সালে দীপা ঝা কে বিয়ে করেন উদিত নারায়ণ।। দীপাও নেপাল থেকে বলিউডে এসেছিলেন ভাগ্যান্বেষণে। এরপর ১৯৮৬ সালে জন্ম হয় পুত্র আদিত্য নারায়নের । বাবার মতো আদিত্যও একজন সঙ্গীতশিল্পী।

এরপর ২০০৬ সালে নেপালের রঞ্জনা ঝা নামে এক মহিলা দাবি করলেন উদিত নারায়ণ তাঁর স্বামী। প্রথমে উদিত নারায়ণ অস্বীকার করেন। এরপর রঞ্জনা প্রকাশ্যে আনেন বেশ কিছু ছবি ও নথি। তারপরে তাঁর আর অস্বীকার করার উপায় ছিলনা। জানা যায়, তিনি রঞ্জনাকে বিয়ে করেছিলেন ১৯৮৪ সালে। ২০০৬ সালে রঞ্জনা সব গোপন কথা ফাঁস করে দেওয়ায় ব্যাহত হয় উদিতের কেরিয়ারও। তবে রঞ্জনা দাবি করেন, তাঁর অর্থ চাই না। শুধু স্ত্রী হিসেবে সম্মান ও স্বীকৃতি চাই। পরে রঞ্জনার সঙ্গে সব মিটমাট করে নেন উদিত। তাঁর দ্বিতীয় স্ত্রী দীপাও জানান, তিনি সব জেনেই উদিত নারায়ণকে বিয়ে করেছেন। উদিতের বিরুদ্ধে সব অভিযোগ তুলে নেন তাঁর প্রথম স্ত্রী রঞ্জনাও। শোনা যায় বর্তমানে দুই স্ত্রীর মধ্যেই সম্পর্ক বেশ ভাল। উদিত নারায়নের দুই স্ত্রী রঞ্জনা এবং দীপা একসাথেই শপিংয়ে যান। এমনকি ছোটখাটো ছুটির অবসরেও উদিতকে দেখা যায় তাঁর দুই স্ত্রীর সঙ্গে।