নীলাঞ্জন সেনগুপ্তঃ আবার নিজের বক্তব্যেই বিতর্কে জড়ালেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। রবিবার উত্তর ২৪ পরগনার ঘোলা বিলকান্দায় চা চক্রের মঞ্চ থেকে তৃণমূল কর্মীদের জুতোপেটা করার হুমকি দিলেন তিনি। এদিন তিনি পুলিশকেও একহাত নেন।
বিজেপি সভাপতি এদিন বলেন ‌‘”যারা মানুষকে পুলিশ দিয়ে ভয় দেখিয়ে রেখেছে তাদের আমরা ছাড়ব না। সব ডায়েরিতে লিখে রাখছি। এবার রাস্তায় সব তৃণমূল কর্মীদের জুতোপেটা করব।” এর পরেই শ্লোগানের ভাষায় বলেন ‘‌পুলিশের হাফ একুশে সাফ।’‌ যদিও মঞ্চ হাততালি কিম্বা জয় শ্রীরাম ধ্বনিতে ফেটে পড়ে।
দিলীপ ঘোষ রাজ্য পুলিশকে দেখে নেওয়ার হুমকি দিয়ে বলেন, ‘‌নেতাদের চামচাগিরি করে ভাবছেন ভাল আছেন, পকেট ভরছে, আনন্দে আছেন। এই আনন্দ বেশিদিন টিকবে না। এক বছর পরে ভেবে রাখুন, কোথায় যেতে হবে।’‌ পুলিশকে এক প্রকার ধমক দিয়েই তিনি বলেন ‘‌বউ–বাচ্চার মুখ দেখতে দেব না। ২ নম্বরি পয়সা কামিয়ে ২৫ লাখ টাকা খরচ করে ছেলেকে বেঙ্গালুরুতে ভর্তি করিয়েছেন?‌ বলে রাখছি, সেই ছেলে ডাক্তারও হবে না, ইঞ্জিনিয়ারও হবে না। তাকে পরিযায়ী শ্রমিক করে ছাড়ব আমি।’‌
তাঁর এই জাতীয় ভাষণ শুনে স্থানীয় এক নেতৃত্ব স্পষ্ট ভাষায় জানান ‘দিলীপ ঘোষের থেকে এর চেয়ে বেশি কী আর আশা করা যায়। তাঁর নিজেরই তো কোনও সংস্কৃতি নেই। এককথায় সে অশিক্ষিত। তাঁর মুখ থেকে আর কি আশা করা যায়। সে তো এরকম বলবেই। তিনি যা সব বলছেন তা যদি করেন তাহলে আমরাই ঝাঁটা হাতে তার প্রতিবাদ করব।’‌