অনিবাস দেঃ ব্যবসার জন্য গত মার্চ মাসে চীনে গিয়ে আটকে পড়েন ইমতিয়াজ আহমেদ। অগাস্ট মাসে অসুস্থ হন তিনি এবং ১২ সেপ্টেম্বর তাঁর মৃত্যু হয়। এই মুহূর্তে তাঁর মৃতদেহ পড়ে রয়েছে চীনের মর্গেই। কারন মৃতদেহ এদেশে আনতেই লাগবে ৮ থেকে ১০ লক্ষ টাকা। আর একারনে উদ্বেগে রয়েছেন বেনিয়াপুকুরের এই ব্যবসায়ী পরিবার। চীনের ভারতীয় দূতাবাসের সঙ্গে তাঁরা যোগাযোগ করেছেন এবং চীনেই দেহ সৎকার করার আবেদনও করা হয়। করোনার কারণে স্থানীয় প্রশাসনের থেকে সেই অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না বলে জানিয়েছে চীনের ভারতীয় দূতাবাস। এই পরিস্থিতিতে রাজ্য ও কেন্দ্রের কাছে শীঘ্রই পদক্ষেপ নেবার অনুরোধ করেছেন। পরিবারের শেষ ইচ্ছে ইমতিয়াজের শেষকৃত্য যেন হয়।