মৃত্যুঞ্জয় রুদ্রঃ সীমান্ত দিয়ে পাচার হয়ে যাচ্ছে গরু আর সেই গরুর টাকা নিচ্ছেন রাজ্যের দুই মন্ত্রী। এই দুই মন্ত্রী হলেন পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব ও উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। শনিবার শিলিগুড়িতে কৃষি বিলের সমর্থনে এক পদযাত্রায় সামিল হয়ে এই অভিযোগ করেন বিজেপির রাজ্য সহ সভাপতি রাজু ব্যানার্জি। শুধু তাই নয় কলসেন্টারের নামে মহিলাদের নিয়ে ব্যবসা করানো হচ্ছে এবং সেখানে যুক্ত রয়েছেন তৃণমূলের নেতারা। এমন ভয়ংকর অভিযোগও তিনি আনেন এলাকার স্থানীয় তৃণমূল নেতাদের বিরুদ্ধে। শিলিগুড়ির বাঘাযতীন পার্ক থেকে বিজেপির তরফ থেকে কৃষি বিলের সমর্থনে আয়োজন করা মিছিলে উপস্থিত ছিলেন রাজু ব্যানার্জি। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন শিলিগুড়ির বিজেপি সাংগঠনিক জেলা সভাপতি প্রবীন আগাওয়াল সহ অন্যান্য নেতারা। সম্প্রতি শিলিগুড়ির বেশ কিছু জায়গায় কলসেন্টার ও ফ্রেন্ডশিপ ক্লাবের আড়ালে চলা আসাধু ব্যবসার খোঁজ পেতেই বেশ কয়েকটি জায়গায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে বেশ কয়েকজনকে আটকও করেছেন। এই ঘটনায় রাজু ব্যানার্জি জানান এর সাথে তৃণমূলের নেতারা জড়িত। তিনি আরও বলেন, “আমরা একটা একটা করে তদন্ত করবো আর এই অবৈধ কাজ বন্ধ করবো”।
পদযাত্রার মাঝেই তিনি সাংবাদিকদের বলেন – “পাশেই বাংলাদেশ সীমান্ত আর সেখান দিয়ে পাচার হয়ে যাওয়া গরুর টাকা নিচ্ছেন মন্ত্রী গৌতম দেব ও রবীন্দ্রনাথ ঘোষ”।
রাজু ব্যানার্জির এই অভিযোগের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে দার্জিলিং জেলা তৃণমূল সভাপতি শ্রীরঞ্জন সরকার বলেন, রাজু ব্যানার্জির অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। উনি একজন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব তবে ওনার মুখে এসব ভাষা কুরুচিকর। প্রমাণ ছাড়া তার এধরণের মন্তব্য করা উচিত নয়।কারন গরু পাচারের ঘটনায় যে বি.এস.এফ জড়িত তা ইতিপূর্বে তদন্তে প্রমাণিত। তিনি আরও বলেন, রাজু ব্যানার্জির নামে থানায় FIR করা হবে। প্রয়োজনে জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত যাবে।