উজ্জ্বল দাসঃ খেয়ে দেয়ে চলে গেলেন অমিত শাহ। আর এদিকে পরিবারের মেয়ের চিকিৎসা চালাচ্ছেন রাজ্য সরকার। উল্লেখ্য নভেম্বর মাসে বাঁকুড়ার চতুরডিহি গ্রামের বিভূষণ হাঁসদার বাড়িতে মধ্যাহ্ন ভোজ করেছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তাঁর চারপাশে নিরাপত্তার কারণে তাকে সেদিন কোন অসুবিধার কথা জানাতে পারেনি সেই আদিবাসী পরিবার। এবার সেই আদিবাসী পরিবারের কন্যার সমস্ত চিকিৎসা এবং ওষুধের দায়িত্ব নিলো বাংলার সরকার। বিভূষণ হাঁসদা জানিয়েছেন যে তাঁর মেয়ে কন্যাশ্রীর টাকা পায়, মেয়েটিকে চিকিৎসার জন্য রাজ্য সরকারের তরফে ডাক্তার পাঠানো হয়েছিল। তাঁর জন্য ওষুধের ব্যবস্থাও করা হয়েছে। এছাড়া আশা কর্মীরাও নিয়মিত দেখতে যাচ্ছেন মেয়েটিকে