রুহদ্রোনীল পালঃ বাংলায় একুশের নির্বাচনের আগেই জেলে বসে বিস্ফোরক চিঠি সারদাকর্তা সুদীপ্ত সেনের। গত ১ ডিসেম্বর প্রেসিডেন্সি জেল থেকে মুখ্যমন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রীর দফতরে চিঠি লিখে রাজ্যের একাধিক রাজনৈতিক দলের নেতার বিরুদ্ধে টাকা নেওয়ার অভিযোগ তুলেছেন সারদাকর্তা। কে নেই সেই তালিকায়, রাজ্য রাজনীতিতে যিনি এই মুহূর্তে সবচেয়ে বেশি চর্চিত সেই শুভেন্দু অধিকারী থেকে শুরু করে মুকুল রায়, বামফ্রন্টের চেয়ারম্যান বিমান বসু, বাম পরিষদীয় নেতা সুজন চক্রবর্তী থেকে শুরু করে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরির নামও রয়েছে চিঠিতে।
তবে এখন প্রশ্ন উঠছে, হঠাৎ ভোটের মুখে কেন চিঠি লিখে এমন বিস্ফোরক অভিযোগ করতে গেলেন সুদীপ্ত সেন? এর পিছনে কি অন্য কোনও রাজনীতি আছে? চিঠির বয়ান সারদাকর্তারই লেখা কি না তা এখনও পরিষ্কার নয়। তবে হাতের লেখা পরীক্ষা করবে সিবিআই। গ্রাফোলজিস্টের কাছে এই চিঠি পাঠানো হবে পরীক্ষার জন্য। তবে বাংলায় ভোটের মুখে সুদীপ্ত সেনের এই চিঠি নিঃসন্দেহে রাজনৈতিক পরিবেশকে উত্তপ্ত করবে।